web counter

স্মরণীয় একটি বিশ্বকাপ উপহার দিতে চায় যুবারা (U-19 বিশ্বকাপের খবর)

চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ স্টেডিয়াম থেকে
ঝলমলে পারফরম্যান্স দিয়ে নিজেদের অঙিনায় এবারের যুব বিশ্বকাপ স্মরণীয় করে রাখতে চান বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজ। তিনি বলেন, ‘অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে আমরা কখনও সেভাবে ভালো করতে পারিনি। এবার আমাদের চাওয়া থাকবে এমন কিছু করার, যেন মানুষ আমাদের মনে রাখে। অনেকদিন পরও যেন বলে, ওই যুব দলটি এত ভালো করেছে, ওরা বাংলাদেশকে অনেক এগিয়ে নিয়ে গেছে। এটাই থাকবে আমাদের লক্ষ্য।’ মঙ্গলবার টুর্নামেন্ট শুরুর আগের দিন চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ অধিনায়ক শোনালেন এমন স্বপ্নের কথা। অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে বরাবরই ফেভারিটের কাতারে থাকে বাংলাদেশ। কিন্তু পারফরম্যান্সে তার প্রতিফলন থাকে সামান্যই। নয়বার অংশ নিয়ে ছয়বারই প্লেট পর্বে খেলেছে বাংলাদেশ। সর্বোচ্চ সাফল্য ২০০৬ আসরে সাকিব-তামিম-মুশফিকদের দলের পঞ্চম হওয়া।
মুশফিকের নেতৃত্বে সেই দলটির পর এবারের দলটি নিয়ে বাংলাদেশের প্রত্যাশা সবচেয়ে বেশি। সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স আর নিজেদের মাটিতে খেলা, সব মিলিয়ে এবার টপ ফেভারিটের একটি বাংলাদেশ। অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে প্রত্যাশার ভারে নুইয়ে পড়ছেন না মেহেদী হাসান মিরাজ। বাংলাদেশ অধিনায়ক বরং চাপকেই করে নিতে চান অনুপ্রেরণা। এমনিতে বিশ্বের প্রায় সব ক্রিকেট খেলুড়ে দেশেই অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ আলোড়ন তোলে সামান্যই। কিন্তু ক্রিকেট উন্মাদনার বাংলাদেশে যুবাদের এই বিশ্বকাপও তুলেছে আলোচনার ঝড়। ক্রিকেট আঙিনায় কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে, দেশের মাটিতে ছোটদের বিশ্বকাপে বাংলাদেশের শিরোপা জয়ের স্বপ্ন। প্রত্যাশার হাত ধরে আসে চাপ। বড় স্বপ্ন মানে চাপের ভারও বেশি। এ প্রসঙ্গে স্বাগতিক অধিনায়ক বলেন, ‘মানুষের আশা তো অবশ্যই বেশি। দেশের মাটিতে বিশ্বকাপ, সবাই চায় আমরা ভালো করি। আমাদের পারফরম্যান্সও বলে দিচ্ছে যে আমরা ভালো করছি। সবার আশা থাকবেই। তবে এটাকে চাপ ভাবলে চলবে না। বরং উৎসাহ ধরে নিয়ে খেলতে হবে। আমাদের সেই আÍবিশ্বাস আছে।’ গত অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের পরপরই কাজ শুরু হয়েছিল এই দল গড়ে তোলার। দেড় বছরে দলের পারফরম্যান্সও দারুণ।’ –

About munna

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *